ঢাকা বুধবার, ৩০শে সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ই আশ্বিন ১৪২৭


রাজশাহীর আম লিচু পরিবহনে ট্রেনের দাবি ব্যবসায়ীদের


প্রকাশিত:
১৬ মে ২০২০ ১০:২৯

আপডেট:
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০৪:২৬

ঐতিহ্যবাহী রাজশাহী অঞ্চলের আম ও লিচু নিয়ে সঙ্কটে পড়তে যাচ্ছেন রাজশাহী অঞ্চলের চাষি ও ফল ব্যবসায়ীরা। এটি বাজারজাতকরণের ক্ষেত্রে সাধারণত ট্রেন, ট্রাক ও কুরিয়ার সার্ভিস ব্যবহার করলেও করোনা পরিস্থিতিতে প্রায় সব পরিবহন বন্ধ রয়েছে। এ ছাড়াও করোনায় দেশের একটি বড় কর্মক্ষম জনশক্তি বেকার হয়ে পড়ায় আমের ক্রেতা নিয়েও রয়েছে সংশয়। ফলে বাগানে বাগানে দেখা মিলছেনা মৌসুমি ফল ব্যবসায়ীদের। এ সঙ্কট নিরসনে আজ শনিবার জনপ্রতিনিধি, বিশেষজ্ঞ, কর্মকর্তা, ফলচাষি, ব্যবসায়ীদের সাথে অনলাইনে বৈঠক করবেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক।

বৈঠকে আম পাঠানোর জন্য ট্রেনকে অগ্রাধিকার দেয়ার দাবি জানাবেন ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, বর্তমানে ট্রাক ভাড়া বেশি পড়বে। মালিক ও ড্রাইভার করোনা এবং রাস্তায় চেকিং নামে হয়রানির অজুহাতে বেশি ভাড়া চাচ্ছেন। কুরিয়ার সার্ভিসে এখন অন্যান্য বছরের চেয়ে চার্জ বেশি। বাণিজ্যিকভাবে আমি ও লিচু সরবরাহ করার জন্য ট্রেন চালু করলে সঙ্কট কিছুটা কমতে পারে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ আম ব্যবসায়ী ও আড়তদার মনজুর হোসেন বলেন, বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ছয়-সাত ঘণ্টার মধ্যে সরাসরি ঢাকা পৌঁছে যায়। যদি এই ট্রেনের সাথে আরো ৪-৫টি মালবাহী ওয়াগন সংযুক্ত করা হয় তাহলে প্রতিদিন প্রায় এক হাজার টন আম পরিবহন করা সম্ভব হবে। এ ব্যাপারে এখনই রেল মন্ত্রণালয়কে সিদ্ধান্ত নেয়া দাবি জানান তিনি।

আম উৎপাদনকারী অন্যান্য জেলার ব্যবসায়ীরাও চলতি বছর ট্রেনের মাধ্যমে আম সরবরাহ করার দাবি জানাবেন। কুরিয়ার সার্ভিস ও বেসরকারি ট্রাকগুলোর পরিবহন ভাড়া সহনীয় মাত্রায় রাখা এবং রাস্তায় কোনো হয়রানি না করার দাবি ও জানাবেন চাষি ও বিক্রেতারা।

আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জ আমচাষিরা বলছেন, গত ৩ বছর ধরে ক্রমাগত আমচাষি ও ব্যবসায়ীরা লোকসান গুনছে বিভিন্ন কারণে। যেমন আম সংগ্রহে তারিখ বেঁধে দেয়া, কারবাইড দিয়ে আম পাকানোর অভিযোগে ট্রাকভর্তি আম ধ্বংস করে দেয়া, পরিবহন ধর্মঘট, ভারত থেকে আম আমদানি করা, প্রচুর পরিমাণে আম রফতানি না হওয়া, আম সংরক্ষণে বিজ্ঞানসম্মত কোনো পদ্ধতি উদ্ভাবন না হওয়া, আম সংরক্ষেণের জন্য আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত ইথোফেন ব্যবহারকারীদের প্রশাসন কর্তৃক জরিমানা করা।


বিষয়:



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

Top